সামগ্রিক সকল ইভেন্ট

করোনা পরবর্তী কার্যক্রমের যাত্রা শুরু “চড়ুইভাতি -২০২১” এর মধ্যে দিয়ে।

লোকজ সাংস্কৃতিক সংগঠন গ্রামীণ খেটে খাওয়া মানুষের জীবন সংস্কৃতির প্রতিনিধিত্বকারী সংগঠন করোনা পরবর্তী সময়ে আবারও নতুনভাবে নতুন উদ্যমে তার পথচলা শুরু করলো।

বিস্তারিত জানুন

লোকজ সাংস্কৃতিক সংগঠনের কমিটি গঠন
জুলাই ২৪, ২০২০

আবহমান গ্রামবাংলার লোক সংস্কৃতির লালন ও চর্চাকারী সংগঠন, লোকজ সাংস্কৃতিক সংগঠন প্রথমবারের মতো কেন্দ্রীয়ভাবে ১৪ সদস্য বিশিষ্ট একটি পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করেছে।

বিস্তারিত জানুন

নানা কর্মব্যস্ততায় ২০২০ সালের জানুয়ারী মাস অতিবাহিত করলো লোকজ সাংস্কৃতিক সংগঠন

২০২০ সালের ১ম মাস জানুয়ারী। বেশ কর্মব্যস্ত কিছুদিন উদযাপনের মধ্য দিয়ে লোকজ সাংস্কৃতিক সংগঠন বরণ করে নিলো বছরের প্রথম মাসটিকে।

বিস্তারিত জানুন

উৎসাহ উদ্দীপনা এবং সফলতায় পরিপূর্ণ বছর ২০১৯ কে বিদায় জানালো লোকজ সাংস্কৃতিক সংগঠন।

২০১৯ সাল। বছরের একদম ঠিক প্রথম দিনটি থেকে একদম শেষ দিনটি অর্থাৎ পহেলা জানুয়ারী থেকে ৩১ই ডিসেম্বর পর্যন্ত পুরো বছরটিকেই কর্মব্যস্ত একটি বছর হিসেবে উদযাপন করে সংগঠন।

বিস্তারিত জানুন

সফলতার ফেব্রুয়ারী মাস অতিবাহিত করলো লোকজ সাংস্কৃতিক সংগঠন।

ফেব্রুয়ারী মাস।মহান ভাষা শহীদদের আত্মত্যাগের স্মৃতি বিজড়িত একটি মাস। এই মাসটি বাঙালি জাতির কাছে পরিচিত ভাষার মাস হিসেবেই। ভাষার সাথে সংস্কৃতির সম্পর্ক অত্যন্ত প্রগাঢ়।

বিস্তারিত জানুন

সেপ্টেম্বরের ১৮ তারিখ, নানা কারণে লোকজ সাংস্কৃতিক সংগঠনের কাছে অর্থবহ একটি দিন।

১৮ই সেপ্টেম্বর।আর দশটা দিনের মতই খুব সাধারণ একটি দিন।তবে একটু আলাদা লোকজ সাংস্কৃতিক সংগঠন ও শান্তি মিশনের সদস্যদের কাছে।কেননা ২০১৩ সালের এই তারিখেই চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় এ যাত্রা শুরু করে লোকজ সাংস্কৃতিক সংগঠন।

বিস্তারিত জানুন

গ্রামীণ মানুষের জীবন সংস্কৃতির প্রতিনিধিত্বকারী সংগঠন “লোকজ সাংস্কৃতিক সংগঠন”।

“লোকজ সাংস্কৃতিক সংগঠন” আবহমান গ্রাম বাংলার খেটে খাওয়া মানুষের জীবন সংস্কৃতির প্রতিনিধিত্বকারী সংগঠন যা প্রতিষ্ঠিত হয়েছিলো ২০১৩ সালের ১৮ই সেপ্টেম্বর চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের মুক্তমঞ্চে কিছু উদ্যোমী আত্মবিশ্বাসী তরুণ তরুণীর একটি সচেষ্ট প্রচেষ্টার বাস্তবায়নের ঐক্যবদ্ধ দৃঢ় শপথ গ্রহণের মধ্য দিয়ে।

বিস্তারিত জানুন